শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঘোষণা :

এমপির ছেলেকে দায়ী করে নায়িকার পোস্ট

সিলেটের এক সাবেক সংসদ সদস্যের ছেলের বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ তুলেছেন ঢাকাই সিনেমার নতুন নায়িকা নিশাত সালওয়া। যদিও কিছুক্ষণ পরই আরেকটি স্ট্যাটাসে ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) এক ফেসবুক পোস্টে তিনি এ অভিযোগ তোলেন।

সেই পোস্টে তিনি লিখেছেন, সিলেটের অতি স্বনামধন্য নবাব পরিবারের সন্তান প্রাক্তন সংসদ সদস্য নবাব আলি আব্বাস আলী খানের পুত্র নবাব আলি হাসিব খান আমাকে উপর্যুপরি প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছেন। আমার কোনো ক্ষতি হলে তিনি দায়ী থাকবেন।

যদিও এই পোস্টের কিছুক্ষণ পরই আরেকটি স্ট্যাটাসে তিনি দাবি করেন একটি ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। সেই পোস্টে নিশাত সালওয়া বলেন, ‘কিছু বিষয় নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি ও মনোমালিন্যের কারণে রাগের বশবর্তী হয়ে আমি ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছিলাম। সিলেটের সবাই আশা করছি ব্যাপারটি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। এভাবে রাগ করে ব্যক্তিগত সম্পর্কের ঝগড়ার কথা আমার পাবলিকলি বলা ঠিক হয়নি। আমরা পারিবারিকভাবে বিষয়টি সমাধান করে ফেলেছি। এটাকে নিয়ে কোনো গুজব না ছড়ানোর অনুরোধ রইলো। ধন্যবাদ’

একই বিষয়ে আজ সকালে আরও একটি স্ট্যাটাস দেন নিশাত। এতে বলেন, ‘সবাইকে সালাম। আশা করছি কিছুটা সময় নিয়ে এই দীর্ঘ পোস্টটি পড়বেন। আমি সিলেটের মেয়ে। আপনারা ইতিমধ্যে জানেন আমি ৪টি চলচ্চিত্রে কাজ করেছি। একটি মুক্তি পেয়েছে। প্রফেশনালিজম এর জায়গা থেকে এগুলোর অবশিষ্ট কাজে আমার অংশগ্রহন করতে হবে। তবে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির যেকোনো চাকচিক্য থেকে আমার কাছে পারিবারিক বন্ধন ও মূল্যবোধের মর্যাদা অনেক বেশি একজন সিলেটি রক্ষনশীল পরিবারের মেয়ে হিসেবে। সিলেট বিভাগের কুলাউড়া উপজেলা (জুরি – কমলগঞ্জ একাংশ) জনগনের ভোটে সর্বাধিক বার নির্বাচিত এমপি নবাব আলী আব্বাস খান আমাকে তার নিজ কন্যার মতো স্নেহ করেন। যার রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে কোনো দুর্নীতির তকমা নেই। তিনি অত্যন্ত ভালো একজন মানুষ। তার পুত্র নবাব আলী হাসিব খানের সঙ্গে ৩য় ব্যক্তির ইন্ধনে আমাদের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। আমাদের পরিবার চায়নি পবিত্র হজ পালনের পর আমি পুনরায় চলচ্চিত্রে কাজ করি। এ থেকে আমাদের মাঝে মনোমালিন্যের সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। তবে সবকিছুর পরে আমার একান্ত উপলব্ধি আমাদের জীবনে সবকিছুর উর্ধে পারিবারিক বন্ধন ও ভালোবাসা। ক্ষনস্থায়ী কোনোকিছুর জন্য নিজের পারিবারিক শান্তি বিনষ্ট করার কোনো মানে হয় না।

আমি আমার এ ক্ষুদ্র ক্যারিয়ারে আমার সকল শুভাকাঙ্ক্ষী ও সাংবাদিক ভাইদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সবসময় আমার পাশে থাকার জন্য। বিশেষ করে সিলেট এর মানুষের ভালোবাসায় আমি সিক্ত। ইনশাআল্লাহ আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী সিলেটবাসীর জন্য কাজ করে যেতে চাই। সবাই আমাদের জন্য দোআ করবেন।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


আমাদের সাথে যুক্ত হোন